মায়ের দুধ পানে শিশুর উপকার

(১) শিশুর জীবন গঠনের সকল উপাদানই মায়ের দুধে বিদ্যমান।
২. জন্মের পর হতে ছয় মাস পর্যন্ত মায়ের দুধ দিয়েই শিশুর ক্ষুধা ও তৃষ্ণা মিটে যায়।
৩. মায়ের প্রথম বা শালদুধে পানি বেশী থাকে, চর্বি জাতীয় পদার্থ কম থাকে।
প্রয়োজনীয় খনিজ পদার্থের অভাব সহজেই পূরণ হয়।
 এতে আরও রয়েছে আমিষ ও এর অংশ ল্যাকট্রোগেভা বিউলিন। যার ফলে
এটি নবজাতকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে।
৪. মায়ের দুধ জীবাণুমুক্ত। জীবাণু ধ্বংসকারী ল্যাকটোস্ফেরিন ও লাইসেঞ্জাইম মায়ের দুধে বিদ্যমান।
৫. ল্যাকট্রোজ নামক এমন একটি পদার্থ মায়ের আছে, যা পৃথিবীর কোন খাদ্যে নাই।
৬. মায়ের দুধে প্রথমে যে রোগ প্রতিরোধকারী দ্রব্য থাকে তার নাম ‘ইম্যনো গ্লোবিইলিন’।
সন্তান জন্মের পর হলুদ দুধের ৯৭% রোগ প্রতিরোধকারী ইম্যনো গ্লোবিইলিন।
৭. মায়ের দুধে যেসব উপকারী দ্রব্য আছে তার মধ্যে অন্যতম :
(ক) পানি
(খ) আমিষ
(গ) ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, সোডিয়াম, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফ্লোরাইড, ভিটামিন, এ্যামাইনো এ্যাসিড, হিস্টিডিন, লিউসিন ও ফ্রিওনিন ইত্যাদি পদার্থ।”
৮. শিশুর স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও নিরাপত্তা বিধান করে মায়ের দুধ
৯. দুধে রয়েছে প্রকৃতির শ্রেষ্ঠ উপাদান ল্যাকট্রোজ,
যা শিশুদের মস্তিষ্কের কোষ ও স্নায়ুতন্ত্র গঠন ও বর্ধণে বিশেষ ভূমিকা রাখে।
সোনামণিদের মাত্র ৫-৭ বছরের মধ্যে মস্তিষ্ক শতকরা ৯০ ভাগ বর্ধিত হয় এবং ১০% বর্ধন সারা
জীবন ধরে হতে থাকে। এজন্য শিশুদের দুধপানে অভ্যস্ত করা অপরিহার্য।
১০. মায়ের দুধ পানকারী শিশুদের উদরাময়/ডায়রিয়া, ফ্লু ও চর্মরোগ হয় না।

শিশুকে দুধ পান করালে মায়ের উপকার 

১. গর্ভধারণ সময়ের চর্বি সহজে নিঃশেষ হয়ে যায়, ফলে সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়।
২. তলপেটের থলথলে ভাব সহজেই চলে যায়।
৩. মায়ের অসুস্থ শরীর দ্রুত সুস্থ হয়ে যায়।
৪. মায়েদের স্তন ক্যান্সারের সম্ভাবনা হ্রাস পায়।
৫. তাদের জরায়ু দ্রুত পূর্বাবস্থায় ফিরে যায়।

সোনামণি ও তার মায়ের মাঝে হৃদ্যতা

১. শিশুর প্রতি মায়ের একটা মমত্ববোধ সৃষ্টি হয়।
২. মায়ের প্রতি শিশুর শ্রদ্ধাবোধ জন্ম নেয়।
৩. দুধপানের সাথে সাথে অনুভূতিহীন তরঙ্গ,
স্পন্দন শিশু ও তার মায়ের মধ্যে বিনা সূতার মালার মত ভালবাসা,
স্নেহমমতা ও আন্তরিকতা বৃদ্ধি করে দেয়।
৪. আয়া ও সেবিকা দ্বারা লালিত সন্তান মায়ের
স্নেহ-মমতা ও পরিবারে আদর থেকে বঞ্চিত থাকে।
৫. মায়ের দুধ শিশুর জন্য আর গাভীর দুধ বাছুরের জন্য। কৌটার দুধ মানে সাদা বিষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.